ডট বিডি ডোমেইন কিনলে ‘ডট বাংলা’ ফ্রি দেবে সরকার

দেশের রাষ্ট্রীয় ডোমেইন নাম ‘ডট বিডি’ কিনলে উপহার হিসেবে পাওয়া যাবে টপ লেভেল কান্ট্রি ডোমেইন ডট বাংলা। ডট বাংলার জনপ্রিয়তা এবং বহুল ব্যবহার বাড়াতে ডট বাংলা বিনামূল্যে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরইমধ্যে প্রস্তাবনা তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বিষয়টির অনুমোদন দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।


প্রসঙ্গত, ডট বাংলা দেশের টপ লেভেল কান্ট্রি ডোমেইন। যেসব ওয়েবসাইট ডট বাংলায় নিবন্ধন করবে, সেসব সাইটে ইংরেজি ভাষার পাশাপাশি বাংলায় ইউআরএল ঠিকানা লিখেও প্রবেশ করা যাবে। চালুর পর থেকে প্রায় হাজারের মতো প্রতিষ্ঠান ডট বাংলায় নিবন্ধন করেছে। ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডট বাংলা ডোমেইন উদ্বোধন করেন। বর্তমানে বাংলায় বিটিসিএল.বাংলা, আনন্দপত্র.বাংলা ইত্যাদি সাইটগুলোতে ঠিকানা লিখে প্রবেশ করা যাচ্ছে। চোখের সামনে পর্দায় ভেসে উঠছে বাংলা সাইট।



রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিযোগাযোগ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) ডট বাংলা ও ডট বিডির নিবন্ধনকারী প্রতিষ্ঠান। শুরুতে ডট বিডির নিবন্ধন চার্জ ছিল ৮০০ টাকা (ভ্যাট ছাড়া)। অন্যদিকে ডট বাংলা নিবন্ধন চার্জ ছিল ভ্যাট ছাড়া ২৫ হাজার টাকা। এছাড়া কিছু ডোমেইন রিজার্ভ (সংরক্ষিত) রাখা হয়েছিল। এর মধ্যে ছিল ডট ওআরজি। চাইলেই এগুলো সবাইকে নিবন্ধন করতে দেওয়া হতো না। ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার প্রথমবার দায়িত্ব নিয়ে ২০১৮ সালে ডট বাংলা ও ডট বিডির নিবন্ধন প্রক্রিয়াকে সহজ করেন এবং চার্জও কমিয়ে দেন। অন্যদিকে রিজার্ভ থাকা ডট ওআরজিকেও উন্মুক্ত করে দেন।


জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘ডোমেইন নাম খাত সংশ্লিষ্টদের সবারই প্রয়োজন। কিন্তু সাধারণ মানুষ তা পাচ্ছিল না। আমি দায়িত্ব নিয়ে বিষয়টি সহজ করার চেষ্টা করেছি। দাম কমিয়েছি ডট বাংলার।’ দাম বেশি হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমি তখন জানিয়ে দিই— ডট বিডির ডোমেইন চার্জ ৮০০ টাকার মধ্যে হতে হবে ভ্যাটসহ। অন্যদিকে ডট বাংলার নিবন্ধন চার্জ ২৫ হাজার থেকে কমিয়ে ৮০০ টাকায় নিয়ে আসি। আমরা চাই, সবাই এটা ব্যবহার করুক। সবার সাধ্যের মধ্যে থাকুক।’


ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমরা চাই, ডট বাংলাকে জনপ্রিয় করতে। প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে ডট বাংলার দাম কমিয়েছি। এজন্য আমাদের অনেক হিসাব-নিকাশ করতে হয়েছে। বিটিসিএলের সঙ্গে বসে হিসাব করে দেখেছি, ডট বিডির সঙ্গে যদি ডট বাংলা ফ্রি দেওয়া যায়, তাহলে বেশিরভাগ মানুষই ডট বিডি ডোমেইন কিনতে উৎসাহী হবেন। আমরা প্রচুর ডট বাংলা সাইট পাবো।’ তিনি বলেন, ‘কান্ট্রি ডোমেইন হলো সেই দেশের ভার্চুয়াল পতাকা। কোনও ইউআরএল ঠিকানার শেষে ডট বিডি থাকা মানে বিশ্বের যেকোনও প্রান্তের মানুষ বুঝতে পারবেন, এটা বাংলাদেশের সাইট। ডট বিডি থাকা মানে সাইটের সঙ্গে দেশের পতাকাটাও জুড়ে থাকা।’

তিনি বলেন, ‘এখন সব বন্ধ। দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে অফিস খুললে এটার চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হবে। আমরা দেখেছি সর্বস্তরে বাংলার ব্যবহার বাড়ছে। এ দেশের জনগণ নিজের ভাষায় পড়তে চায়। ফলে বাংলাতে আমাদের আসতেই হবে।’ তিনি উল্লেখ করেন, আইকানের সঙ্গে ‘ড়,’ ‘ঢ়’ ‘য়’ বর্ণ নিয়ে যে সমস্যা ছিল, তা দূর হয়েছে। বর্ণগুলোকে স্বতন্ত্র বর্ণ হিসেবে মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। নোকতাকে অপসারণ করা হয়েছে। ফলে বাংলায় সাইট করতে আর কোনও সমস্যা থাকলো না।’

তো আজ এই পর্যন্তই। সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং ট্রিকবাজের সাথে থাকবেন, ধন্যবাদ।

লেখকঃ